Home Blog

২০২৪ সালে ফের প্রেসিডেন্ট পদের জন্য লড়বেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

২০২৪ এর নির্বাচনে লড়তে প্রস্তুত আমেরিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তার ঘনিষ্ঠ মিত্ররা বলছেন, আফগানদের প্রত্যাহারের পরিপ্রেক্ষিতে ২০২৪ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জো বাইডেনের সঙ্গে পুনর্মিলনের জন্য প্রস্তুত ট্রাম্প। (৮ সেপ্টেম্বর) সংবাদ সংস্থা স্পুটনিক জানায় গত মাসে কাবুল থেকে মার্কিন দূতাবাসের ঘটনা এবং মার্কিন সেনাদের প্রত্যাহারের পর জো বাইডেনের অনুমোদন রেটিং হ্রাস পেয়েছে

একজন প্রাক্তন মুখপাত্র এবং দুই রিপাবলিকান কংগ্রেসম্যান বলেছেন, তালেবানরা কাবুলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দখলের পর কাবুল দূতাবাস থেকে দ্রুত মার্কিনিদের সরিয়ে নেওয়ার কারণে ২০০ জনেরও বেশি লোক মারা গিয়েছিল।এদিকে, ট্রাম্পের প্রচারণার সাবেক মুখপাত্র জেসন মিলার চলতি সপ্তাহে নিউজ সাইট চেডারকে বলেছিলেন, ট্রাম্পের প্রার্থিতা প্রায় নিশ্চিত।উল্লেখ্য, গত ২০ জানুয়ারি জো বাইডেনের শপথ নেওয়ার ঘণ্টাকয়েক আগে হেলিকপ্টারে চড়ে হোয়াইট হাউস ছেড়েছিলেন।  তারপর আর টেলিভিশনের সামনে আসেননি তিনি। এরপর গত মার্চে ট্রাম্প জানান, ২০২৪ সালে ফের প্রেসিডেন্ট পদের জন্য লড়বেন তিনি।

কে সন্তানের বাবা ?এ বিষয়ে মুখ খুললেন নুসরাত

0

নুসরতের সন্তানের বাবা কে? অভিনেত্রী-সাংসদ অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর থেকেই গোটা দুনিয়া জুড়ে এই জল্পনা চলছিল। সোশ্যাল মিডিয়াতেও নেটিজেনরা নানা সময়ে, নানাভাবে নুসরতকে এই প্রশ্নেই জর্জরিত করছিল। শেষমেশ, সব গোপনীয়তা সরিয়ে নুসরত জানিয়ে দিলেন তাঁর ছেলে ঈশানের বাবা কে? তবে স্পষ্ট নয়। বরং ইঙ্গিতেই সন্তানের বাবার কথা জানিয়ে দিলেন নুসরত জাহান।বুধবার বিকেলে এক স্যালোঁর উদ্বোধন করতে গিয়েছিলেন নুসরত। মা হওয়ার পর এই প্রথম কোনও অনুষ্ঠানে যোগ দিলেন তিনি। তাঁর এই অনুষ্ঠানে হাজির থাকা নিয়ে প্রথম থেকেই উত্তেজনা ছিল। সবাই তাই নুসরতকে সামনে পেয়েই জিজ্ঞেস করেন তাঁর সন্তানের পিতৃ পরিচয়। সংবাদ মাধ্যমের এই প্রশ্ন একেবারেই এড়িয়ে গেলেন না নুসরত। হেসে উত্তর দিলেন

হেসে উত্তর দিলেন সন্তানের বাবা সবটা জানেন। একজন মহিলাকে এরকম প্রশ্ন করা মানে তাঁকে অপমান করা তবে এখানেই থেমে থাকেন না নুসরত। তাঁর কথায়, -যশকে সঙ্গে নিয়ে অভিভাবকত্ব দারুণ কাটছে। মাতৃত্ব উপভোগ করছি। বাবা যখন চাইবে, তখনই সবার সামনে আনা হবে সন্তানকে।ছেলের মা হওয়ার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি তো পোস্ট করছেন নিয়মিত, কিন্তু ছেলে ঈশানকে  একটিবারও ক্যামেরার সামনে আনছেন না অভিনেত্রী। উলটে মা হওয়ার পর তাঁর নতুন জীবন কেমন যাচ্ছে, তা নিয়েই নানারকম পোস্ট করছেন নুসরত জাহান।। কমেন্ট বক্সে নুসরতের ছেলে ঈশানকে দেখতে চাওয়ার অনুরোধও করেছেন নেটিজেনদের মধ্যে কেউ কেউ।নুসরত জাহান অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পরই গুঞ্জন ছড়িয়েছিল

অভিনেত্রীর গর্ভের সন্তান নাকি আসলে অভিনেতা যশ দাশগুপ্তর । তবে সন্তানের বাবা কে তা নিয়ে প্রথম থেকেই মুখে কুলুপ এঁটেছেন নুসরত। মা হওয়ার পরও নুসরত কিচ্ছুটি জানাননি। যশও কিছু বলেননি। এমনকী, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছেও বিষয়টি আড়ালেই রেখেছেন। গুঞ্জনে শোনা যাচ্ছে, নুসরত ছেলের নামের মধ্যে দিয়েই সন্তানের বাবার পরিচয় জানিয়ে দিয়েছেন! সেই গুঞ্জনের আগুনে আরেকটু বারুদ ঢাললেন অভিনেত্রী

নায়িকা হতে চেয়েছিলেন খালেদা জিয়া-তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান

0

সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া চিত্রনায়িকা হতে চেয়েছিলেন বলে তথ্য দিয়েছেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। তবে বাবার অমতের কারণে তার চিত্রনায়িকা হওয়ার সাধ পূরণ হয়নি বলেও তথ্য দিয়েছেন তিনি।গত রোববার  দুপুরে বাংলাদেশ টেলিভিশনের চট্টগ্রাম কেন্দ্রে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তথ্য প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেছেন। এদিন তিনি বাংলাদেশ টেলিভিশনের চট্টগ্রাম কেন্দ্রে ডিজিটাল নিউজ রুম ও স্টুডিও উদ্বোধন করেন। এছাড়া বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনের  জন্য বরাদ্দ দেওয়া জায়গা পরিদর্শন করেন।

জিয়াউর রহমান খুন না হলে বেগম খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী হতে পারতেন না এমন মন্তব্যের পর প্রসঙ্গক্রমে খালেদার চিত্রনায়িকা হতে চাওয়ার বিষয়টি টানেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী। তিনি বলেন,বেগম জিয়ার তো চিত্রনায়িকা হওয়ার কথা ছিল। দিনাজপুর থেকে বেগম জিয়া এফডিসিতে আসছে। তার বাবা আবার তারে নিয়ে গেছে। তাকে নায়িকা হতে দেয়নি। এ বেগম জিয়া হইছে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীবেগম জিয়া নিজেই চেয়েছেন তার স্বামী মারা যাক— এমন মন্তব্যও করেন প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান। তিনি বলেন, জিয়া হত্যাকাণ্ড না ঘটলে বেগম জিয়ার স্বাধ পূরণ হতো না। বেগম জিয়া কি কখনো তার স্বামী হত্যার বিচার চেয়েছে? তার পুত্র লন্ডনে বসে… সে কি বিচার চায়? উল্টো বলতে চায় বাংলাদেশ নাকি দখল করব। খুনি জিয়ার পুত্র কয় বাংলাদেশ নাকি সে দখল করব, বাংলাদেশ নামে নাকি কোনো রাষ্ট্র, জাতিই নাই! এ বাংলার মাটির সন্তান না জিয়া পরিবার… পাকিস্তানের। আমরা তাদের চিনি। এদের দালালি যারা করতেছেন ভালো হয়ে যান, সোজা হয়ে যান। বেগম জিয়া, তারেক বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী, এ দুঃস্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে না। যারা ওই তালে আছেন তাল ছাইড়া দেন

তথ্য প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন -খুনের ইতিহাস যারা তৈরি করেছে, বঙ্গবন্ধু কন্যার নেতৃত্বে সেসব খুনিদের বিচার বাংলার মাটিতে হয়েছে। যারা ইনডেমিনিটি জারি করেছে সেই খুনি মোস্তাক, জিয়াউর রহমান তাদের বিচার বাংলার মাটিতে এখনও পর্যন্ত হয়নি। আমার দায়িত্ব একটাই- যারা খুনি- বঙ্গবন্ধু পরিবারকে হত্যা করেছে, এ জিয়া পরিবারের বিচার বাংলার মাটিতে করতেই হবে- মরণোত্তর বিচার। আর যারা জীবিত এবং দেশ ধ্বংস করেছিল ও এখনও চায় সেই বেগম জিয়া, কুলাঙ্গার তারেক- এদের বিচার এ বাংলার মাটিতে হতেই হবে। আমি ডাক্তার মুরাদের মতো বঙ্গবন্ধু কন্যার সন্তানতুল্য… জীবন দিয়ে হলেও ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য তাদের মুখোশ উম্মোচন ও বিচার করতেই হবে।এ সময় চেয়ারে বসে দায়িত্ব নিয়ে কথা বলার আহ্বান জানিয়ে তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হোসেন বলেন, ‘আমরা যেন এমন কথা না বলি যাতে প্রধানমন্ত্রী বিব্রত হয়। যার যার চেয়ারে বসে আমরা যেন দায়িত্ব নিয়ে কথা বলি। যার যার দায়িত্ব তাকে তাকে পালন করতে হবে। আমি যেটা বুঝি সেটা করব, যেটা বুঝি না সেটা করব না। যেটা পারি না সেটা করার চেষ্টা যেন আমি না করি। আমি যেখানে বসে আছি সে চেয়ারের নাম কী সেটা জেনে বুঝে যেন দায়িত্ব পালন করি। অযথা বেশি কথা যেন কেউ না বলি কাজ যেন একটু বেশি করি

দেশমাতা! আমায় একটু নিরাপত্তা দিতে পারেন! -আবেদন পরীমনি্র

0

পরিমনি জামিন পেলেও এখনও একেবারেই ভাল নেই বাংলাদেশের অভিনেত্রী পরীমনি৷ প্রায় এক মাস জেলে কাটানোর পর মুক্তি পেয়েছেন ঠিকই, কিন্তু এখনও নিজেকে নিরাপদ বলে মনে করছেন না তিনি ৷ তাই নিরাপত্তার জন্য কাতর আকুতি জানালেন বঙ্গবন্ধু কন্যা, দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ৷দিনকয়েক আগে যে পুলিশকর্তার সঙ্গে চুম্বনের ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছিল পরীমনির ।দীর্ঘ ২৬ দিন টানা জেল খাটার পর গত ২ সেপ্টেম্বর জামিনে মুক্তি পেয়েছেন পরী৷ তবে বাড়ি ফেরার পরই তাঁর হাতে নোটিস ধরিয়েছেন বাড়িওয়ালা ৷ নোটিসে বলা হয়, অবিলম্বে তাঁকে সেই বাড়ি ছেড়ে দিতে হবে ৷

এই নোটিস পেয়ে মাথায় হাত পড়ে অভিনেত্রীরদক কাণ্ডে জামিন পেলেও এখনও একেবারেই ভাল নেই বাংলাদেশের অভিনেত্রী  পরীমনি  প্রায় এক মাস জেলে কাটানোর পর মুক্তি পেয়েছেন ঠিকই, কিন্তু এখনও নিজেকে নিরাপদ বলে মনে করছেন না তিনি ৷

তাই নিরাপত্তার জন্য কাতর আকুতি জানালেন বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ৷দিনকয়েক আগে যে পুলিশকর্তার সঙ্গে চুম্বনের ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছিল পরীমনির । সেই নিয়েও সরব হয়েছেন  পরীমনি লেখেন একজন রাস্তাতে থাকা মানুষের যেটুকু নিরাপত্তা, আমার সেটুকুও কি নেই? সেইসঙ্গে পরীমনির প্রশ্ন, আমি এখন কোথায় যাব! আমায় কি এ বার দেশ ছাড়তে হবে? পরীমনির এই অবস্থা দেখে সরব হয়েছিলেন বাংলাদেশের বিতর্কিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন ৷ একসময়ে তাঁকেও এই একই অভিজ্ঞতার শিকার হতে হয়েছে বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি ৷ দেশও ছাড়তে হয় তসলিমাকে। সেইসব কথা নিজের ফেসবুকে শেয়ার করেছিলেন লজ্জার লেখিকা।

এ বার একইপথে কী পরী দেশের কাছেই নিরাপত্তার আর্জি জানালেন পরীমনি৷ নিজের ফেসবুকের পাতায় তিনি লিখেছেন, দেশমাতা, আমাকে কি একটু নিরাপত্তা দিতে পারেন! রাস্তায় মানুষগুলোও এত অনিরাপদ না । একবার একটু দেখেন না আমার দিকে, কি করে বেঁচে আছি।অভিনেত্রীর এই কথায় স্পষ্ট নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন তিনি ৷তিনি বলেন ‘আমার গাড়ি ও ফোন সব তদন্তকারী আধিকারিকরা নিয়ে নিয়েছেন ।

যে সমস্ত ভিডিয়ো প্রকাশ্যে এসেছে, সেগুলি আমার ফোনেই ছিল । আমার ব্যক্তিগত ভিডিয়ো ফাঁস করার অধিকার কারও নেই ।এমনকি গ্রেফতারির সময় ও জেলে তাঁকে হেনস্থা করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন পরীমন ৷ শিগগিরই তিনি গোটা ঘটনা সামনে আনবেন বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের অভিনেত্রী ৷ তিনি জোর গলায় জানিয়েছেন যে, তিনি নিরপরাধ৷ সে জন্যই তিনি শুরু থেকে শক্ত থেকে গোটা পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে পেরেছেন বলে জানিয়েছেন৷ তিনি কোনও দোষ করলে আগেই ভেঙে পড়তেন বলে দাবি করেছেন পরীমনি৷ এর আগে তাঁর দাদুর লেখা একটি চিঠিও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন।

শরিয়ত এর আইনেই জীবনযাপন চলবে আফগানিস্তানে’- সরকার গঠনে পর বার্তা তালিবানদের

গণতন্ত্র নয়, আফগানিস্তানে  জীবন চলবে শরিয়ত আইন মেনে। সরকার গঠনের পর স্বমেজাজে ফিরে সাফ জানিয়ে দিল তালিবান সুপ্রিমো হায়বাতোল্লা আখুন্দজাদা। মঙ্গলবার দীর্ঘ জল্পনার শেষে সরকার গঠন করে তালিবান । স্বাভাবিকভাবেইর মন্ত্রিসভায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছে সিরাজউদ্দিন হাক্কানি। কাবুল দখলের পর প্রথমবারের জন্য মুখ খুলেছে তালিবদের শীর্ষনেতা হায়বাতোল্লা আখুন্দজাদা। তাঁর বক্তব্য, শরিয়তের আওতায় আন্তর্জাতিক আইন ও চুক্তিগুলি মেনে চলবে তালিবান।ভবিষ্যৎ প্রশাসনের সমস্ত কাজ এবং জনজীবন নিয়ন্ত্রিত হবে শরিয়ত আইন মেনে। তবে দেশের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাই, আবদুল্লা আবদুল্লা বা গুলবুদিন হেকমতিয়ার তালিব মন্ত্রিসভায় জায়গা পাননি।

উল্লেখ্য, আফগানিস্তানে তালিবানের শাসনকে মান্যতা দেওয়া নিয়ে বিভক্ত বিশ্ব। পাকিস্তান, রাশিয়া, চিন ও ইরানের মতো দেশগুলির স্বীকৃতি শুধুমাত্র আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়া। কারণ আমেরিকাকে কোণঠাসা করতে তালিবানের সঙ্গে বিগত সাত বছর ধরে আলোচনা চালাচ্ছে মস্কো ও বেজিং। সেই চেষ্টা এবার ফলপ্রসূ হয়েছে। একইভাবে আফগানভূমে ভারতের প্রভাব খর্ব করতে তালিবানই ইসলামাবাদের প্রধান অস্ত্র। বাকি রইল ইউরোপের দেশগুলি ও আমেরিকা। তা এই মুহূর্তে তাদের স্বীকৃতি না পেলেও খুব একটা প্রভাব পড়বে না তালিবদের উপর।এদিকে, আফগানিস্তান নিয়ে আলোচনা করতে আজই দিল্লিতে বৈঠকে বসছেন ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল ও রাশিয়ার ন্যাশনাল সিকিউরিটি অ্যাডভাইজর নিকোলাই পেত্রোশেভ।

অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন মুনিয়া

0

রাজধানীর গুলশানে একটি ফ্ল্যাটে কলেজ শিক্ষার্থী মোসারাত জাহান মুনিয়ার মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান, তার স্ত্রী আফরোজা সোবহান, ছেলে ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীরসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগ এনে মামলা করেছেন মুনিয়ার বড় বোন নুসরাত জাহান তানিয়া। এজাহারের কপি থেকে জানা যায়, মৃত্যুর আগে অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন মুনিয়া।সোমবার  ঢাকা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৮-এর বিচারক মাফরোজা পারভীনের আদালতে মামলার আবেদন করেন তিনি।বড় বোন নুসরাত মামলায় অভিযোগ করেছেন, মুনিয়ার মৃত্যুর পর যে ময়নাতদন্ত করা হয়েছে; সেই রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘ভিকটিম ২/৩ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন।মামলার আর্জিতে আরও বলা হয়, ‘মুনিয়া প্রতিদিন ডায়েরি লিখতেন। বাসায় তার লেখা চারটি ডায়েরি পাওয়া গেছে। যাতে আসামি আনভীরের সঙ্গে মেলামেশা ও শারীরিক সম্পর্কের কথা তারিখ দিয়ে লেখা রয়েছে। একটি ডায়েরির কাভারে লেখা ছিল -Anvir I love you’

এজাহারে দাবি করা হয়, ‘ভিকটিম ২/৩ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে ভিকটিম ১ নম্বর আসামিকে বিয়ের জন্য চাপ দেন। এতে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও চরম বিরোধ সৃষ্টি হয়। বিষয়টি অপর আসামিদের মধ্যে প্রকাশ পেলে তারা পারিবারিক সুনাম-সুখ্যাতি রক্ষায় ভিকটিমকে দুনিয়া থেকে সরিয়ে দেওয়ার গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়। এক পর্যায়ে ১ নম্বর আসামি ভিকটিমকে বলে তুমি কুমিল্লা চলে যাও। মা তোমাকে মেরে ফেলবে।অভিযোগে আরও বলা হয়, পুলিশ ভিকটিমের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে। এতে ভিকটিমের যৌনাঙ্গে জখম ও রক্ত পরিলক্ষিত হয়। ভিকটিমের পরিধেয় বস্ত্র, অন্তর্বাস, পাজামা, কাটা ছেঁড়া ছিল। যাতে প্রতীয়মান হয়, হত্যার পূর্বে ভিকটিমের সঙ্গে ধস্তাধস্তি হয়েছিল এবং ভিকটিম ধর্ষিতা হয়েছিল।

খালেদা জিয়ার মুক্তির আবেদন আইন মন্ত্রণালয় থেকে

0

বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসার জন্য মুক্তি চেয়ে করা পরিবারের আবেদনে মতামত দিয়ে আইন মন্ত্রণালয় থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।এর আগে, গত সপ্তাহে খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম এস্কান্দার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর এ আবেদন করেন। পরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে মতামতের জন্য আবেদনটি আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। আবেদনে মতামত দিয়ে সেটি মঙ্গলবার আবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়।আইনমন্ত্রী বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসার জন্য মুক্তি চেয়ে পরিবারের করা আবেদনে মতামত দিয়ে আজ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। তবে আবেদনে কী মতামত দেওয়া হয়েছে সে বিষয়ে তিনি কিছু জানাননি।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, আইন মন্ত্রণালয়ের মতামতের ভিত্তিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সিদ্ধান্ত নেবে। আগের বারের মতো এবারের চিঠিতেও খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসার জন্য পাঠানোর কথা বলে তার মুক্তি চাওয়া হয়েছে।গত ১৫ মার্চ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে খালেদা জিয়ার কারাভোগের মেয়াদ ছয় মাস স্থগিত করে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর সেই মেয়াদ শেষ হচ্ছে। মেয়াদ শেষের কয়েক দিন আগে খালেদার ভাই শামীম এস্কান্দার আবেদন করেন।

সরকার প্রধান মোল্লা মোহাম্মদ হাসান

অন্তর্বর্তী সরকার প্রধানের নাম ঘোষণা করেছে তালেবান। নতুন সরকার প্রধান হচ্ছেন মোল্লাহ মোহাম্মদ হাসান আখুন্দ। মঙ্গলবার রাতে সংবাদ সম্মেলনে তালেবানের পক্ষ থেকে এ ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।সংবাদ সম্মেলনে তালেবানের মুখপাত্র জাবিহউল্লাহ মুজাহিদ জানিয়েছেন- তালেবানের সহ-প্রতিষ্ঠাতা আব্দুল গনি বরাদার উপ-প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেনতালেবানের নতুন সরকারে বহুল আলোচিত মুখ প্রায় নেই বললেই চলে। এমনকি কোনো নারীকেও অন্তর্ভূক্ত করা হয়নি। সরকারের সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়া তদারক করবেন গোষ্ঠীটির শীর্ষনেতা হাইবাতুল্লাহ আখুন্দজাদা। অন্তবর্তী সরকারের প্রধান মোল্লা হাসান তালেবানের প্রথম দফা শাসনামালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন হাক্কানি নেটওয়ার্কের নেতা সিরাজুদ্দিন হাক্কানি। আল-কায়েদার সঙ্গে সম্পর্কের কারণে হাক্কানি নেটওয়ার্ককে সন্ত্রাসী সংগঠনের তালিকাভুক্ত করেছিল মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর।নতুন সরকারে পররাষ্ট্র দপ্তর পেয়েছেন আমির খান মুত্তাকি, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে রয়েছেন মোল্লা ইয়াকুব, সংস্কৃতি ও তথ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন তালেবানের মুখপাত্র জাবিহউল্লাহ মুজাহিদ, শিক্ষামন্ত্রণালয়ে শেইখ মাওলাউই নুরুল্লা মুনির, অর্থমন্ত্রণালয় পেয়েছেন মোহাম্মদ হানিফ

ইভ্যালি থেকে সরে গেল যমুনা

মুনা গ্রুপ এর পরিচালক মোহাম্মদ আলমগীর আলম এ কথা জানান যে– ইকমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালিতে বিনিয়োগ করবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিল্পগোষ্ঠী যমুনা গ্রুপ। সোমবার ৬ সেপ্টেম্বর যমুনা গ্রুপের পরিচালক মার্কেটিং, সেলস অ্যান্ড অপারেশনস মোহাম্মদ আলমগীর আলম ফেসবুকে জরুরি গণ বিজ্ঞপ্তি তে এ কথা বলেছেন।তিনি আরও বলেচে-কোনো চূড়ান্ত বিনিয়োগের আগে পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে পর্যালোচনা এবং পুনঃপর্যালোচনা ছাড়া কোনো ব্যবসায়িক খাতে শত শত কোটি টাকা বিনিয়োগ করার অবিবেচনাপ্রসূত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে যমুনা গ্রুপ দীর্ঘ সময়ের কষ্টার্জিত অর্থ, সুনাম, মেধা ও সক্ষমতাকে ঝুঁকিতে ফেলতে রাজি নয়।তিনি আরও বলেন, অন্য কোনও কোম্পানিতে যমুনা গ্রুপের অর্থ বিনিয়োগ করার সিদ্ধান্ত, এখতিয়ার এবং অধিকার শুধু যমুনা গ্রুপের একান্ত বিষয়, এটি কারও অনুরোধে ঢেঁকি গেলার বিষয় নয়।অন্য কোনও কোম্পানির অভ্যন্তরীণ বিষয়ে যমুনা গ্রুপ কোনও দায় অতীতেও নেয়নি, ভবিষ্যতেও নেবে না বলেও জানান তিনি।

 গত ২৭ জুলাই ইভ্যালিতে ১ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগের ঘোষণা দেয় যমুনা গ্রুপ। প্রাথমিকভাবে ২০০ কোটি টাকা বিনিয়োগের  কথা জানায় যমুনা। এরপর বিভিন্ন পর্যায়ে বিনিয়োগ করা হবে ১ হাজার কোটি টাকা।

জাতীয় চিড়িয়াখানায় কম দামে বিক্রি হবে হরিণ

0

জাতীয় চিড়িয়াখানার হরিণের দাম কমানো হয়েছে। এখন প্রতিটি হরিণ ৭০ হাজার টাকার পরিবর্তে মাত্র ৫০ হাজার টাকায় জাতীয় চিড়িয়াখানা থেকে হরিণ কেনা যাবে।সোমবার মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়।প্রজ্ঞাপনে বলা হয় -অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মতিতে চিত্রা হরিণের দাম ৭০ হাজার টাকার পরিবর্তে ৫০ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।জাতীয় চিড়িয়াখানার পরিচালক আব্দুল লতিফ সাংবাদিকদের জানান -আজকে থেকে এটা কার্যকর হয়েছে।দাম কমানোর কারণ দেখিয়ে তিনি বলেন-দাম বেশি হওয়ার কারণে মানুষের মধ্যে অনীহা ছিল। বাইরে অনেক খামার আছে তো, সেখানে নাকি তারা একটু কম দামে পায়।

মিরপুর চিড়িয়াখানার তিন শেডে থাকার জায়গা রয়েছে ১৫০টি হরিণের। মহামারীর অবসরে সেখানকার প্রাণিদের প্রজনন ক্ষমতা বৃদ্ধি পাওয়ায় হরিণের সংখ্যা ৩০০ ছাড়িয়ে গেছে।।জাতীয় চিড়িয়াখানার হরিণের দাম কমানো হয়েছে। প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়প্রজ্ঞাপনে বলা হয়-

অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মতিতে চিত্রা হরিণের দাম ৭০ হাজার টাকার পরিবর্তে ৫০ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।জাতীয় চিড়িয়াখানার পরিচালক আব্দুল লতিফ সাংবাদিকদের জানান, -আজকে থেকে এটা কার্যকর হয়েছে।দাম কমানোর কারণ দেখিয়ে তিনি বলেন, দাম বেশি হওয়ার কারণে মানুষের মধ্যে অনীহা ছিল। বাইরে অনেক খামার আছে তো, সেখানে নাকি তারা একটু কম দামে পায়।মিরপুর চিড়িয়াখানার তিন শেডে থাকার জায়গা রয়েছে ১৫০টি হরিণের। মহামারীর অবসরে সেখানকার প্রাণিদের প্রজনন ক্ষমতা বৃদ্ধি পাওয়ায় হরিণের সংখ্যা ৩০০ ছাড়িয়ে গেছে। সেজন্য মার্চ মাসে ১৬৫টি হরিণ বিক্রির ঘোষণা দেয় চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ।তবে হরিণ কেনার আগে অনুমতি নিতে হবে বন বিভাগের। একজন ক্রেতাকে অন্তত দুটি হরিণ কিনতে হবে।