1. [email protected] : ashik :
পরীমনির মতো কুমারী এবং নিষ্পাপ মেয়েকে নিয়ে ছিনিমিনি খেলা হচ্ছে- NotunBD | নতুন বিডি
শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০১:৫১ পূর্বাহ্ন

পরীমনির মতো কুমারী এবং নিষ্পাপ মেয়েকে নিয়ে ছিনিমিনি খেলা হচ্ছে-

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ২৩ আগস্ট, ২০২১
  • ৩২৯ Time View

পরীমনির প্রতি অবিচার করা হচ্ছে শুধু তাই নই! তার সম্মান আর মর্যাদা শুধু ক্ষুণ্ন করা হচ্চে। অপরাধ প্রমাণের আগেই তাকে অপরাধী বানানো হচ্ছে বলে মনে করেন দেশের বিশিষ্ট নাগরিকরা। নারী ও কন্যা নির্যাতন সামাজিক অনাচার প্রতিরোধ জাতীয় কমিটির উদ্যোগে আয়োজিত ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় এ কথা বলেন সংবিধান বিশেষজ্ঞ, বিচারপতি, অর্থনীতিবিদসহ সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা।তীব্র নিন্দা জানান তারা। অবিলম্বে এসব অনাচার বন্ধের আহ্বান জানিয়ে সামাজিক আন্দোলন জোরদার করার আহ্বান তাদের। নারীর প্রতি বিচারহীনতার চর্চা রোধে বিশিষ্ট নাগরিকদের স্বাক্ষরসহ বিবৃতি প্রকাশ করা হবে বলে আলোচনা সভায় জানানো হয়।পরীমনিকে জামিন না দিয়ে এবং তার বিরুদ্ধে মিডিয়া ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে যেভাবে অপপ্রচার করা হচ্ছে এতে তার মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে বলেও নিন্দা জানান তারা। এক্ষেত্রে বিচারের আগে অপরাধী সাব্যস্ত না করা এবং শব্দ প্রয়োগে মিডিয়াকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহ্বান জানানো হয়।

মানুষ ভুল ত্রুটির ঊর্ধ্বে নয় পরীমনি ইস্যুতে পরিচালকসভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন,যে সমাজে নারীর মর্যাদা বা সম্মান নেই সে সমাজে বিচার সম্ভব না। পরীমনির মতো কুমারী মেয়েকে নিয়ে ছিনিমিনি খেলা হচ্ছে।তাকে জামিন না দেওয়ার সমালোচনা করে তিনি বলেন আমাদের সমাজে নারীদের ওপর যে অত্যাচার ও অনাচার এবং সুশাসনের ক্ষেত্রে তাদের অবস্থান বিবেচনায় দেখা যাচ্ছে তারা সঠিক বিচার বা সামাজিক সুবিচার পাচ্ছে না। স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রে স্থান পাওয়া যে তিনটি মূলনীতির ভিত্তিতে সংবিধান রচিত হয়েছে- সেই তিনটি মূলনীতি সমতা, মানবিক মর্যাদা এবং সামাজিক ন্যয়বিচার এই তিনটি মূল্যবোধ কতখানি প্রতিফলিত হচ্ছে বা কতখানি নির্বাসিত টনায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ভূমিকার তীব্র সমালোচনা করে তাদের সংযত আচরণ করার আহ্বান জানান।  নারীর সম্মান, মর্যাদা সুরক্ষা দেওয়ার কথা, সেটা না করে তারা নারীকে হয়রানি করছেন, অসম্মান করছেন। আইনের বাইরে গিয়ে সাংবিধানিক ও মানবাধিকার লঙ্ঘন করছেন। তাদের এই আচরণের সুযোগ নিয়ে সামজিক মাধ্যমে আজকে সামাজিকভাবে যেভাবে নারীদের বিষোদগার করা হচ্ছে সরকার এর দায় এড়াতে পারে না।এই ধরনের আচরণ বাংলাদেশে চলতে পারে না।

মহিলা পরিষদের সভাপতি ও সামাজিক অনাচার প্রতিরোধ কমিটির আহ্বায়ক ড. ফওজিয়া মোসলেম বলেন- পরীমনিকে গ্রেপ্তারের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভিন্ন ধরনের পরিস্থিতির অপচেষ্টা চলছে। পুরুষ ও নারী অপরাধীর ক্ষেত্রে একই আচরণ, একই ধরনের আইন, একই ধরনের ব্যবস্থা নিতে হবে। কিন্তু দেখতে পাচ্ছি একজন নারীকে অপরাধী হিসেবে বিবেচনার পর তার প্রতি পুরুষের চেয়ে অনেক ভিন্নতর আচরণ করা হচ্ছে। অভিযোগ প্রমাণের আগে নারী হলে তার গায়ে কলঙ্ক লেপনের চেষ্টা করা হয়।আইন প্রয়োগে পুরুষ বা ক্ষমতাধর হলে একরকম অচরণ আর নারী বা দুর্বল হলে আরেকরকম আচরণ সেটা মেনে নেওয়া যায় না। যারা তুলনামূলকভাবে দুবর্ল তাদেরকে অপরাধ চক্রের সঙ্গে যুক্ত করে ফেলা হচ্ছে। অপরাধী বানিয়ে নির্যাতন করা হচ্ছে। যে ঘটনাগুলো ঘটছে- পরীমনি-পিয়াসা বা মৌ বলেন, দেশে যে নানা ধরনের অসৎ উপায়ে অর্থ উপার্জন হচ্ছে সেই পরিবেশটা আমাদের সমগ্র সমাজকে  অপরাধের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। এই অবস্থা চলতে থাকলে সমাজ অল্প দিনেই অধঃপতনের দিকে চলে যেতে পারে। আমাদের জান মালের নারী জীবনের সম্মানের কোনো নিরাপত্তা দেখতে পাচ্ছি না। আরও বলেন, এভাবে যদি ক্ষমতাসীনরা একের পর এক আইনের অপব্যবহার করতে থাকে তাহলে দেশের মানুষ কীভাবে বিচার পাবে বুঝতে পারছি না। এই পরিস্থিতির পরিবর্তনের মূল হাতিয়ার জনগণ। জনগণকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

whatsapp sharing button
twitter sharing button
email sharing button
print sharing button

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
©Notun BD © All rights reserved
Develper By ITSadik.Xyz