কাতারের পোশাক নিয়ে ব্যঙ্গ করে ক্ষমা চাইলেন ধারাভাষ্যকার

বিশ্বকাপের খেলার ধারাভাষ্য দেওয়ার সময় কাতারের পুরুষদের ঐতিহ্যবাহী পোশাক নিয়ে ব্যঙ্গ করে ক্ষমা চেয়েছেন ধারাভাষ্যকার। গত রোববার জার্মানি ও স্পেনের মধ্যকার খেলার ধারাভাষ্য দেওয়ার সময় জার্মানির সাবেক ফুটবলার জান্দ্রো ভাগনার এই উপহাস করেন।
কাতারের পুরুষদের ঐতিহ্যবাহী ওই পোশাককে তিনি গোসলের আগে-পরে ব্যবহৃত ঢিলা গাউনের সাথে তুলনা করেন। এরপরই সমালোচনার ঝড় উঠলে ক্ষমাপ্রার্থনা করেন তিনি।

জার্মানির সরকারি প্রচার মাধ্যম জেডডিএফ চ্যানেলে বিশ্বকাপের গুরুত্বপূর্ণ ওই ম্যাচের ধারাভাষ্য দেওয়ার একপর্যায়ে ভাগনার বলেন, তিনি ভেবেছিলেন আল বায়াত স্টেডিয়ামের এক প্রান্ত জার্মান দর্শকে পরিপূর্ণ।

বায়ার্ন মিউনিখের আক্রমণভাগের সাবেক এই খেলোয়াড় কাতারের ঐতিহ্যবাহী পোশাক ‘থাউব’ নিয়ে তখন তিনি বলেন, ‘কিন্তু এরপরই আমি অনুধাবন করলাম, সেটা কাতারি বাথরোব।’

মূলত থাউব হলো লম্বা হাতাসহ সাদা পূর্ণ দৈর্ঘ্যের পোশাক, যা কাতারসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে প্রধানত পুরুষরা পরিধান করে থাকে। কাতারিদের কাছে এটা জাতীয় মর্যাদার প্রতীক। প্রত্যেক আরব রাষ্ট্রের নিজস্ব থাউবের প্রচলন রয়েছে।
এদিকে পোশাক নিয়ে ভাগনারের এমন মন্তব্যের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনা শুরু হয়। অনেকে তার মন্তব্যেকে ‘বর্ণবাদী’ বলে জেডডিএফ টিভি চ্যানেলের টুইটারে সমালোচনা করেন।

এমন পরিস্থিতিতে সোমবার বিবৃতি দিয়ে ভাগনার তার মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চান। বিবৃতি টুইটারে শেয়ার করে তার মন্তব্য ছিল ‘অসঙ্গত ও অনুপযুক্ত’। তিনি বলেন, তার মন্তব্যের কারণে কেউ আঘাত পেয়ে থাকতে পারেন, তবে সেটা ইচ্ছাকৃত ছিল না।
জার্মান প্রচার মাধ্যমটিও তার এই মন্তব্যেকে ‘দুঃখজনক’ অভিহিত করে জানিয়েছে, খেলার এক আবেগঘন মুহূর্তে সাবেক এই ফুটবলার এমন মন্তব্য করেছেন। তবে এমন মন্তব্য করার জন্য তাকে অনুমতি দেওয়া হয়নি।

About admin

Check Also

কেন ১৪ তলা ভবনে পেলের সমাধি?

মর্ত্যলোক থেকে বিদায় নিয়েছেন ‘ফুটবল রাজা’ পেলে। গত ২৯ ডিসেম্বর ৮২ বছর বয়সে সাও পাওলোর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *