স্কুলে ডেকে এনে প্রেমিককে জাপটে ধরে রোমান্সে মাতলেন ছাত্রী, এলাকাজুড়ে হইচই

সিনেমায় রোমান্টিক দৃশ্য হরহামেশাই দেখা যায়, যে সময় প্রেমিক প্রেমিকার মনেও রোমান্স জাগে। এটাই স্বাভাবিক। অনেক সময় সিনেমার দৃশ্যে দেখা যায়, স্কুল জীবনের প্রেম, যেখানে একটি মেয়ে একটি ছেলে দুজনে বাহুডোরে আবদ্ধ হয়। প্রণয় নিবেদনে ব্যস্ত হয়ে পরে। তবে এবার প্রেমের গল্প নয় এটা বাস্তবের সত্য একটি ঘটনা। যেটা ঘটেছে একটি স্কুল চত্বরে। এমন ঘটনা ঘটলো ঘাটাল ব্লকের একটি হাইস্কুলে।

স্কুলের টিফিনের সময়। কেউ টিফিন খেতে ব্যস্ত, আবার কেউ খেলাধুলা বা খুনসুটিতে ব্যস্ত। কেউ একজন স্কুলের জানালা দিয়ে বাইরে তাকিয়ে আছে। আর একজন সেই সময় প্রেমিককে স্কুলে ডেকে পাঠায়। প্রেমিক অবশ্য স্কুলের ছাত্র নন। আর সেই ডাকে সাড়া দিয়ে প্রেমিক সরাসরি স্কুলে হাজির হওয়ার পর প্রেমিককে নিয়ে প্রেমে ব্যস্ত হয়ে পড়েন ওই ছাত্রী। প্রেমিককে দেখা মাত্রই সে জড়িয়ে ধরে সে প্রেম নিবেদনও করে। সখা এবং সখীর মধ্যে চুম্ব”/ন পর্ব শুরু হয়। এদিকে স্কুলে প্রেম নিবেদন করতে গিয়ে তারা বিপাকে পড়ে যায়। তার শত্রুর সংখ্যাও কম নেই বিদ্যালয়টিতে!

দ্বাদশ শ্রেণির হাইস্কুলের ছাত্রীর এমন প্রেমের কথা শুনতে স্কুল কর্তৃপক্ষের সময় লাগেনি। গত বৃহস্পতিবার বিকেলে তাদের এই চু”/ম্বনের দৃশ্য দেখে সহপাঠীরা বিষয়টি শিক্ষকদের জানায়। ব্যাস, স্কুলে ঐ ছাত্রীর অভিভাবকদের ডেকে পাঠানো হয়। কিন্তু, শিক্ষক ও অভিভাবকদের সামনে ঐ ছাত্রী নির্ভীকতা দেখিয়ে সব স্বীকার করে অকপটে। দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রী তার কাজের জন্য মাথা নত না করে নিজের সিদ্ধান্তে অটল। শিক্ষক-শিক্ষিকা এবং অভিভাবকের কাছে দুরন্ত প্রেমের কথা অকপটভাবে স্বীকার করে নেয়।

শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা বিষয়টি মেনে নিয়েছেন কিনা তা জানা যায়নি তবে ছাত্রীটির বিদ্যালয়ে আসা বন্ধ করে দিয়েছে। কারণ কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত, বিদ্যালয়ে ওই সব কাজ করে বিদ্যালয়ের পরিবেশ নষ্ট করা হয়েছে। তাই ঐ ছাত্রী স্কুলে আসতে পারবে না। বিষয়টি ঐ ছাত্রী ও তার অভিভাবকদেরও জানানো হয়েছে। তবে তাকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসতে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

এদিকে বিদ্যালয়ে এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন অন্যান্য শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা। এগুলো দেখে তাদের সন্তানেরাও এই পথে হাঁটতে শুরু করবে। যেটা তাদের এই বয়সের জন্য একদমই ভালো হতে পারে না। যদি স্কুল কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা না নেয়, তাহলে অন্যরাও এ ধরনের কাজ করার সাহস পাবে। তবে স্কুল কর্তৃপক্ষ যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এই ঘটনার বিষয়ে, তাতে অভিভাবকেরা অনেক খুশি বলে জানা যায়।

About admin

Check Also

বিমানবন্দরে স্ত্রীসহ আটকে দেওয়া হলো আলোচিত সেই কাউন্সিলর খোরশেদকে, জানালেন কারণ

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন এর ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ, যিনি টানা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *