এবার ৫৮ বছর বয়সে বিয়ের পিঁড়িতে বিএনপির সভাপতি, জানা গেল কনের পরিচয়

রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গকে ক্ষেত্রে সংবাদ মাধ্যমের শিরোনামে আসাটা চমকে যাওয়ার মতো বিষয় না হলেও শেষ বয়সে এসে বিয়ের পিঁড়িতে বসাটা রীতিমতো যেন অবাক করে দেয় সবাইকেই। আর এরই জের ধরে সম্প্রতি বেশ আলোচনায় এসেছেন মেহেরপুর-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা বিএনপির সভাপতি মাসুদ অরুণ।

৫৮ বছর বয়সে শুক্রবার (৪ নভেম্বর) সন্ধ্যায় চুয়াডাঙ্গার শাহেদ প্যালেসে কনে আমেনা খাতুনের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। বিয়ের অনুষ্ঠানে পরিবারের সদস্য ও নিকটতম রাজনৈতিক সহকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

মাসুদ অরুন মেহেরপুর জেলা বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, ভাষা সংগঠক, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক সংসদ সদস্য আহমদ আলীর বড় ছেলে। ছাত্রজীবন থেকেই তিনি রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। ২০০১ সালে বিএনপি সরকারের আমলে মেহেরপুর-১ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। অপরদিকে কনে আমেনা খাতুন চুয়াডাঙ্গার আসমানখালী এলাকার বান্দরভিটা গ্রামের মৃত মোহাম্মদ আলীর মেয়ে। তিনি স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের বিয়ের বিষয়টি প্ৰকাশ্যে আসতেই অনেকেই নেতিবাচক মন্তব্য করলেও নব এই দম্পতির জন্য শুভকামনা জানিয়েছেন অনেকেই।

About admin

Check Also

ওবায়দুল কাদেরের উদ্বোধনী বক্তব্যের সময় হঠাৎ গোলাগুলি, হাসপাতালেএকজন

শুধু বিরোধী দলই নয়, বর্তমান ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে ঘিরেও ঘটছে নানা অপ্রত্যাশিত কাণ্ড। আর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *