Breaking News

অস্ট্রেলিয়ার গণমাধ্যমেও কোহলির ‘প্রতারণা’

ভেজা মাঠে তাড়াহুড়ো করে আম্পায়ারদের খেলা শুরু করা ও বিরাট কোহলির ফেক ফিল্ডিং আম্পায়ারের চোখ এড়িয়ে যাওয়া- এ নিয়ে বিতর্ক যেন থামছেই না। এদিকে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ নিয়ে তৈরি হওয়া বিতর্ক দেশের গণমাধ্যম চাপিয়ে ছড়িয়েছে বাইরের মিডিয়াগুলোতেও। অস্ট্রেলিয়া অনুষ্ঠিত হওয়া বিশ্বকাপে ভারতের এরূপ প্রতারণা নিয়ে থেমে থাকেনি আয়োজক দেশটির মিডিয়াগুলোও।
বিরাট কোহলির ফেক ফিল্ডিংয়ের প্রতারণা নিয়ে বিভিন্ন মিডিয়াই সমালোচনা চলছে এখনো। অস্ট্রেলিয়ার সিডনি মর্নিং হেরাল্ড, নিউজ ডট কম, সেভেন স্পোর্টস, নাইন স্পোর্টসসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে এ নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে যে, ‘বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ভারতের প্রতারণামূলক জয়ে ‘ফেক ফিল্ডিং’র জন্য বিরাট কোহলির কি শাস্তি হওয়া উচিত ছিলো না?’

ইনিংসের সপ্তম ওভারে বাংলাদেশি ব্যাটার লিটন দাস অক্ষর প্যাটেলের বলকে ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্টে ছুঁড়ে দেন। আর্শদ্বীপ সিং বলটি স্ট্রাইকারের প্রান্তে ফিরিয়ে দেন। কোহলি যে পয়েন্টে দাঁড়িয়ে ছিলেন তার পাশ দিয়ে বলটি চলে গেলেও তিনি তা স্ট্রাইকারের প্রান্তে থ্রো করার ভান করেছিলেন।
গণমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়, আইসিসি আইন ৪১.৫ এর অধীনে বলা হয়েছে, ‘ইচ্ছাকৃত বিভ্রান্তি, ব্যাটসম্যানের প্রতারণা বা বাধা’ দেওয়া আইন লঙ্ঘন। সে হিসেবে কোহলিকে ৫ রানের শাস্তি দেওয়া উচিত ছিলো, যা ছিলো বাংলাদেশের জন্য পরাজয়ের ব্যবধান।
গণমাধ্যমগুলোতে প্রকাশ করা হয়েছে কোহলির ভুয়া বল নিক্ষেপের ভিডিও। বলা হয়েছে, ‘এমন একটি প্রতারণা কীভাবে আম্পায়ারদের নজর এড়িয়ে গেলো?

সেভেন স্পোর্টস শিরোনাম করেছে, বিরাট কোহলির অদ্ভুত ‘প্রতারণার’ আম্পায়ারদের নজরে পড়েনি’। গণমাধ্যমটি লিখেছে, ‘আইনে ভারতের জন্য ৫ রানের জরিমানা হওয়া উচিত ছিলো, যা ছিলো তাদের সঠিক জয়ের ব্যবধান। ’
‘ভুয়া ফিল্ডিংয়ের অভিযোগে অভিযুক্ত কোহলি’- এই শিরোনাম করেছে সিডনি মর্নিং হেরাল্ড।
নাইন স্পোর্টস ব্যানার শিরোনাম করেছে, ‘‘বাংলাদেশ বিরাট কোহলিকে ‘অন্যায়’ পদক্ষেপে ‘ভুয়া ফিল্ডিংয়ের’ অভিযোগ করেছে এবং যা প্রমাণিত।’’

About admin

Check Also

কেন ১৪ তলা ভবনে পেলের সমাধি?

মর্ত্যলোক থেকে বিদায় নিয়েছেন ‘ফুটবল রাজা’ পেলে। গত ২৯ ডিসেম্বর ৮২ বছর বয়সে সাও পাওলোর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *