বিরোধী দলের আন্দোলন নিয়ে যে তথ্য দিলেন জার্মান রাষ্ট্রদূত

আগামী নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ব্যাপক আলোচনা সৃষ্টি হচ্ছে দেশে ও দেশের বাহিরে। বিগত দুটি নির্বাচন নিয়ে রাজনৈতি দলগুলোর মধ্যে বিতর্ক রয়েছে। তবে আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু-নিরপেক্ষ ও সকল দলের অংশগ্রহন চায় রাজনৈতিক দলগুলোসহ বিদেশী দেশ গুলো। যার জন্য নির্বাচন বিষয়ে সরকার ও বিরোধী দলের সাথে বৈঠক চালিয়ে করছে বিদেশী কূটনৈতিকরা। নির্বাচন পরিবেশ নিয়ে সরকারের অবস্থান সম্পর্কে যা জানালেন জার্মান রাষ্ট্রদূত আখিম ট্রোস্টার।

বাংলাদেশে নির্বাচনী পরিবেশ সম্পর্কে ঢাকায় নিযুক্ত জার্মান রাষ্ট্রদূত আখিম ট্রোস্টারকে আশ্বস্ত করেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। রোববার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে দ্বিপাক্ষিক বিষয় নিয়ে বৈঠকে গেলে আলোচনার প্রেক্ষিতে তাকে এ বিষয়ে আশ্বস্ত করা হয়। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও দূতাবাস সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
ঢাকায় নিযুক্ত জার্মান রাষ্ট্রদূত আখিম ট্রোস্টার দ্বিপাক্ষিক বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পশ্চিম ইউরোপ ও ইইউ বিষয়ক বিভাগের মহাপরিচালক ফাইয়াজ মুরশিদ কাজীর সঙ্গে দেখা করতে যান। বৈঠকে জলবায়ু পরিবর্তন, উন্নয়ন অংশীদারিত্ব, আসন্ন শীতের আগে জার্মানির পরিস্থিতি, ইউক্রেন ইস্যু এবং বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে আলোচনা হয়।

বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পশ্চিম ইউরোপ ও ইইউ বিষয়ক বিভাগের মহাপরিচালক দেশের একটি জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যমকে বলেন, জার্মান রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক ও বহুপাক্ষিক বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে।
সূত্র জানায়, বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের গতি নিয়ে আলোচনা হয়। রাষ্ট্রদূতকে আরও জানানো হয় যে দুই দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক কিছুটা মন্থর হয়েছে। এর কারণ ইউক্রেন ইস্যু। এ সময় রাষ্ট্রদূতের কাছে জানতে চাওয়া হয়, আসন্ন শীত কীভাবে মোকাবেলা করবে জার্মানি। এ সময় তিনি বাংলাদেশকে নরওয়ে থেকে জ্বালানি সংগ্রহের কথা জানান। আলোচনাকালে বাংলাদেশের রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে বৈঠকের বিষয়েও আলোচনা হয়। একপর্যায়ে জার্মান রাষ্ট্রদূত জানান, কয়েকদিন আগে আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপকমিটি আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দেন তিনি। তিনি বৈঠকে আরও জানান, ওই অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূত ‘মুজিবকোট’ পরেন।

একটি কূটনৈতিক সূত্র দেশের একটি জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যমকে বলেন, বৈঠকটি খুবই ভালো ও গঠনমূলক হয়েছে। নির্বাচনের আগে নির্বাচনী প্রচারণার সময় বাংলাদেশে যে পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় তাতে বিস্মিত না হওয়ার জন্য ঢাকার পক্ষ থেকে রাষ্ট্রদূতকে পরামর্শ দেওয়া হয়। দক্ষিণ এশিয়ায় প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে দায়িত্ব পালন করছেন জার্মান রাষ্ট্রদূত। ফলে এখানকার নির্বাচনী সংস্কৃতি তার জন্য নতুন। তবে বৈঠকে নির্বাচনী স/হিংসতা রোধে সবাইকে কাজ করতে বলা হয়েছে।
বৈঠকে উপস্থিত একটি সূত্র দেশের একটি জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যমকে জানায়, জার্মান রাষ্ট্রদূত বলেছেন, বিরোধীদের সঙ্গে বৈঠকে তারা যেভাবে বিস্তারিত তুলে ধরেছেন তাতে মনে হচ্ছে বিরোধীরা সরকারকে ফেলে দেবে। সরকার ফে/লে দেওয়া ঘটনার সত্যতা ও ইতিহাস জানতে চান রাষ্ট্রদূত। এ সময় তার সামনে ৯০ এর উদাহরণ তুলে ধ/রা হয়।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, বাংলাদেশ মূলত জার্মানির বর্তমান পরিস্থিতি বুঝতে চায়। তাদের অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক অবস্থা কোন দিকে অগ্রসর হচ্ছে? কারণ ইউক্রেন-রাশিয়া যু/দ্ধ শুরুর পর গোটা বিশ্ব মন্দার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। বিশ্বের বৃহৎ শক্তিগুলো তাদের নিজেদের চ্যালেঞ্জ ও প্রতিবন্ধকতা মোকাবেলায় ভবিষ্যতে কী করবে বা এখন তারা কী করছে তার ওপর ভিত্তি করে বাংলাদেশ সিদ্ধান্ত নিতে পারে।
এদিকে, গতকাল ঢাকায় জার্মান দূতাবাসের ভেরিফায়েড টুইটারে জানানো হয়েছে, জার্মানির কেন্দ্রীয় অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও উন্নয়ন প্রতিমন্ত্রী ড. বারবেল কফলার ২৮ অক্টোবর থেকে ২ নভেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশ সফর করবেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, রাজনৈতিক আলোচনার জন্য জার্মান পার্লামেন্টের চার সদস্যের একটি উচ্চপর্যায়ের প্রতিনিধি দল আগামী সপ্তাহে ঢাকায় আসছে। প্রতিনিধি দলের অন্য তিন সদস্য হলেন টিনা রুডলফ, জোহানেস ওয়াগনার এবং নুট গেরশাউ। প্রতিনিধি দলটি বাংলাদেশ সরকার ও সুশীল সমাজের সঙ্গে রাজনৈতিক আলোচনা করবে। তারা ঢাকা, খুলনা ও যশোরে টেকসই সরবরাহ ব্যবস্থা এবং জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে জার্মানির বিভিন্ন উন্নয়ন সহযোগিতা প্রকল্প পরিদর্শন করবেন।
প্রসঙ্গত, দেশের নির্বাচনকালীন পরিবেশ সম্পর্কে নিয়ে বাংলাদেশের অবস্থানের বিষয়টি তুলে ধরেন জার্মান রাষ্টদূত। তিনি বলেন, নির্বাচন নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর অবস্থানের কথা তুলে ধরেন তিনি।

About admin

Check Also

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পর্যবেক্ষক পাঠাতে চায় ইইউ

আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পর্যবেক্ষক পাঠাতে চায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ)। বুধবার (১৮ জানুয়ারি) নির্বাচন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *