Breaking News

সবাইকে সতর্ক করে কাদের জানালেন, ‘আর্থিক সংকটে দেউলিয়াত্বের দিকে যাচ্ছে দেশ’

বাংলাদেশের বর্তমান অর্থৈনৈতিক সংকট নিয়ে চলছে বেশ অস্থিরতা। আর এই অস্থিরতার মধ্যেই যেন নতুন করে ঘি ঢেলে দিলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের। তিনি বলেছেন,আর্থিক সংকটে দেশ দেউলিয়া হওয়ার দিকে যাচ্ছে।মঙ্গলবার (১১ অক্টোবর) বিকেলে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয়ে এক যোগদান অনুষ্ঠানে তিনি এ দাবি করেন।জিএম কাদের বলেন, দেশ দেউলিয়া হওয়ার দিকে যাচ্ছে। ৪-১০ ঘণ্টা লোডশেডিংয়ের কারণে অসহনীয় দুর্ভোগে পড়েছে দেশের মানুষ। ১৪ হাজার মেগাওয়াটের পরিবর্তে ২০ হাজার মেগাওয়াট উৎপাদনের প্রস্তুতি রয়েছে। কিন্তু সরকারের অর্থের অভাবে জ্বালানি কিনতে পারছে না। বিশ্ববাজারে গ্যাসের দাম কমেছে।

অর্থের অভাবে সরকার তা কিনতে পারছে না।এর আগে, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের (বিএইচআরসি) নির্বাহী সম্পাদক ও এফবিসিসিআই সদস্য মির্জা শাহাদাত হোসেন এবং বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের (বিএইচআরসি) সাধারণ সম্পাদক (আন্তর্জাতিক বিশেষ প্রতিনিধি) গোলাম কিবরিয়া মোল্লা জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের হাতে ফুল দিয়ে দলে যোগ দেন।প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাড. রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, মোস্তফা আল মাহমুদ, চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা আনিস উল ইসলাম মণ্ডল, ভাইস চেয়ারম্যান ইয়াহ ইয়া চৌধুরী, জসিম উদ্দিন ভূঁইয়া, যুগ্ম মহাসচিব ফখরুল আহসান শাহজাদা, বেলাল হোসেন, মঞ্জুর হোসেন মঞ্জু, সাবেক সংসদ সদস্য সালাহউদ্দিন আহমেদ মুক্তি,মো. আবু জাফর ,অলিউল্লাহ চৌধুরী মাসুদ, মাখন সরকার, দপ্তর সম্পাদক-২ এম এ রাজ্জাক খান।গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেন, শ্রীলঙ্কা দেউলিয়া হওয়ার আগে সে দেশে লোডশেডিং ছিল। ডলার বেড়েছে, জ্বালানি কিনতে পারছে না।

আবারও অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে নিত্যপণ্যের দাম। বাংলাদেশেও ঠিক একই চিত্র। এখানেও ডলারের বিপরীতে রুপির দাম কমছে। ডলারের অভাবে সরকার জ্বালানি কিনতে পারছে না। বিদ্যুতের অভাবে শিল্প কারখানা চালু রাখা সম্ভব হচ্ছে না, উৎপাদন কমছে। অনেকেই চাকরি হারিয়ে বেকার হয়ে পড়েছেন।

টাকার দাম কমে যাওয়ায় নিত্যপণ্যের দাম বেড়েছে কয়েকগুণ। শ্রীলঙ্কার মতো মেগা প্রকল্পে লাখ লাখ টাকা বরাদ্দ করা হচ্ছে। একই সঙ্গে হাজার হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার হচ্ছে।গাইবান্ধা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনে হামলা ও মিথ্যা মামলায় ঘরে থাকতে পারছেন না জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা। গাইবান্ধায় ভোটারদের হুমকি দিচ্ছে হাজার হাজার বিদেশি সন্ত্রাসী। আবার সরকারি দলের আনুকূল্য পেতে ব্যস্ত প্রিসাইডিং অফিসার, পোলিং অফিসাররা। আসলে দেশের নির্বাচনী ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে।তিনি বলেন, জেলা পরিষদ নির্বাচন চলছে।

নেত্রকোনায় জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও জাতীয় পার্টির নেত্রী আসমা আশরাফের ওপর সরকার সমর্থকদের হামলা হয়েছে। তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে হয়েছে। আবারও পিরোজপুরের তুষখালী ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক সফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে কিছু হয়রানিমূলক ও মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে পিরোজপুরের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থীকে টিকিয়ে রাখতে। কয়েকদিন আগে এমন একটি মামলায় হাজিরা দিতে যাচ্ছিলেন সফিকুল ইসলাম। পথিমধ্যে সরকার সমর্থকরা তাকে মোটরসাইকেল থেকে নামিয়ে পা কেটে ফেলে। তিনি এখনো ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।প্রসঙ্গত, এমন দেশের এমন চিত্র তৈরী হয়েছে চলতি বছরের মাঝের দিকে। ওই সময় থেকেই টাকার মান কমতে থাকে আর বাড়তে থাকে ডলারের দাম। আর সেই থেকেই দেশের অর্থনীতির বেহাল দশা তৈরী হয়। এই অবস্থা থেকে কবে নাগাদ উত্তরণ পাবে বাংলাদেশ তা জানা যায়নি এখনো কিংবা দেখা যাচ্ছে না সে রকম কোনো লক্ষণ।

About admin

Check Also

দখলদার যে দলের হোক, ছাড় নয়: সালমান এফ রহমান

দখলদার যে দলের হোক না কেন কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *