বিএনপি আসলেও আওয়ামী লীগের চাইতে বর্বর শাসন উপহার দিতে পারে : পিনাকী

আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় থাকার জন্য বিরোধী মতকে দমন করতে নানা ধরনের কৌশল নিয়েছে। ক্ষমতায় থাকার জন্য তারা নির্বাচন ব্যবস্থাকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। শুধু তাই গন্ততন্ত্রে নিয়ে ধ্বং/স করেছে এমন দাবি তুলেছে বিভিন্ন মহল। যদি এই সরকার ক্ষমতা থেকে নতুন যে সরকার আসবে তারা এমন করবে না তার তো নিশ্চয়তা নেই। তবে জনগণের ভোটের মাধ্যমে যে সরকার নির্বাচিত হবে সেই ক্ষমতায় আসবে এটাই বাস্তবতা। বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগা/যোগ মাধ্যমে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন পিনাকী ভট্টাচার্য হুবাহু পাঠক/দের জন্য নিচে দেও/য়া হলো।আমার ইনবক্সে কাল একজনকে কঠিন ঝাড়ি দিলাম। আসলে একই কথা বারেবারে দেখতে দেখতে একই প্রশ্নের উত্তর বারেবারে দিতে দিতে একসময় আর ধৈর্য থাকেনা। আবার এটাও সত্য বাংলাদেশের সব মানুষ তো আমার সেই উত্তরগুলা দেখে নাই।যাই হোক, প্রশ্নটা হইতেছে মোটামুটি এইরকম, ধরলাম আওয়ামী লীগ খারাপ বিএনপি আসলে কি তারা এইরকম করবেনা তার গ্যারান্টি আছে?

সব দলই একই রকম। সব দেখা আছে। আবার একই ধরণের প্রশ্ন আওয়ামী লীগ গেলে কে আসবে? এই প্রশ্ন আমারে করেন কেন? নিজে উত্তর খুজে নিতে পারেন না?এই প্রশ্নটাই ভুল। শুধু ভুল না মারাত্মক ভাবে ভুল।প্রশ্নটা আওয়ামী লীগ ভালো নাকি খারাপ সেইটা না। প্রশ্নটা এইটাও না যে আওয়ামী লীগ গেলে কে আসবে?প্রশ্নটা আরো বেইসিক। একটা রাষ্ট্রে আপনি আপনার শাসককে পছন্দ করেন ভোট দিয়ে৷ নাগরিক হওয়ার এইটা ন্যুনতম শর্ত। এই ভোটটাই আমি দিতে পারিনা। আমি যে অপছন্দের শাসককে ভোট দিয়ে হঠাবো সেই সিস্টেমটাই নষ্ট করে দেয়া হয়েছে।প্রশ্নটা হচ্ছে, এই অধিকারটা ফিরে পাওয়ার। এই অধিকার আমি চাই নাকি চাইনা সেইটা প্রশ্ন। আপনি না চাইলে চুপ করে থাকেন। আপনারে কেউ জোর করতেছে না। অনেকেই ধ* র্ষ/* কে উপভোগ করে। আপনি করলে আমি বাধা দেয়ার কে?

আমি তো আপনাকে গ্যারান্টি দিতে পারবোনা যে আপনি এর পরের জনের জন্য পাইত্যা দিবেন কিনা নাকি রেজিস্ট করবেন।আপনার যদি মর্যাদা থাকে, হিম্মত থাকে তাহলে হারানো অধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য ফাইট করবেন। আর যদি ফ্যসিবাদের ঠাপ উপভোগ করতে থাকেন তাইলে ওইটাই করেন, আমাগো চিল্লাপাল্লায় ডিস্টাব নিয়েন না। শেষে ঠা/*ও খাইবেন মাগার মজাও পাইবেন না। ফ্যাসিবাদের মা/* রা খাওয়ার মজা নিতেছেন, তো মজা নেন, আমাগো বিরক্তি উৎপাদন কইরেন না।আর উত্তরটা হইতেছে বিএনপি আসলেও আওয়ামী লীগের চাইতে বর্বর শাসন উপহার দিতে পারে, কোন গ্যারান্টি নাই। আর বর্বর শাসন উপহার দিলে আবারো বিএনপির পশ্চাতে লা*/ দিয়ে জনগনের ক্ষমতা উদ্ধার করতে হবে। এইটাই দুনিয়ার ইতিহাস।প্রসঙ্গত, জণগন তার পছুন্দের ব্যক্তিকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবে এটিই গণতন্ত্রের মূল ধারা কিন্তু বর্তমানে কি সেটা হারিয়েগিয়েছে বলে মন্তব্য করেন পিনাকী ভট্টাচার্য। তিনি বলেন, সেটি আবারও ফিরিয়ে আনতে আমাদের সংগ্রাম করতে।

About admin

Check Also

ওবায়দুল কাদেরের উদ্বোধনী বক্তব্যের সময় হঠাৎ গোলাগুলি, হাসপাতালেএকজন

শুধু বিরোধী দলই নয়, বর্তমান ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে ঘিরেও ঘটছে নানা অপ্রত্যাশিত কাণ্ড। আর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *