জাল সনদে শিক্ষকের চাকরি, তুলছেন সরকারি বেতন-ভাতাও!

মাগুরা সদর উপজেলার সত্যপুর বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভুয়া সনদে এমপিওভুক্ত হওয়ার অভিযোগ উঠেছে সহকারী শিক্ষক (সমাজ বিজ্ঞান,) মো. বসির আহম্মেদের বিরুদ্ধে। অভিযোগ উঠেছে শিক্ষাগত যোগ্যতা না থাকা সত্ত্বেও জালিয়াতির মাধ্যমে নিয়োগ পেয়েছেন সহকারী শিক্ষক (সমাজ বিজ্ঞান) পদে। অথচ মো. বসির আহম্মেদ পড়ালেখা করেছেন ব্যবসায় শিক্ষা শাখায়, এনটিআরসিএ নিবন্ধনও করেছেন ব্যবসায় শিক্ষা শাখায়।

জানা যায়, ২০১৩ সালের ২২ নভেম্বর একটি জাতীয় দৈনিক ১ জন সমাজ বিজ্ঞান শিক্ষক (সমাজ) এবং ১ জন অফিস সহকারী (করনিক) আব্যশক মর্মে বিজ্ঞপ্তি দেয়। মো. বসির আহম্মেদ ২০১৪ সালের ১ ফেব্রুয়ারি সহকারী শিক্ষক সমাজ বিজ্ঞান পদে যোগদান করে।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর ও আওতাধীন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও দপ্তরগুলোর জনবলের তথ্য পোর্টালে ১১৭৯২৩ –সত্যপুর বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের যে তথ্য দেওয়া আছে তাতে দেখা যায় মো. বসির আহম্মেদ, সহকারী শিক্ষক (ব্যবসায় শিক্ষা) ইন্ডেক্স নং- ১১০৬৪৭৮, পিডিএসআইডি- ১০০৪৮৫০৮৩।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জরিপ-২০২১ (ব্যানবেইজ), ১১৭৯২৩–সত্যপুর বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়েকর্মরত শিক্ষক-কর্মচারীর যে তথ্য দেওয়া আছে তাতে দেখা যায় মো. বসির আহম্মেদ, সহকারী শিক্ষক (ব্যবসায় শিক্ষা/কর্মাস) এ কর্মরত।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক মো. বসির আহম্মেদ, সহকারী শিক্ষক (ব্যবসায় শিক্ষা/কর্মাস) সত্যপুর বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ব্যবহৃত মুঠোফোনে কল দিলে তিনি কল রিসিভ করে কেটে দেন। পুনরায় কল দিলে তিনি আবারও কেটে দেন। খুদে বার্তা পাঠিয়েও তার সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

সত্যপুর বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুনীল কুমার ঘোষের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে দৈনিক ঢাকা টাইমসকে তিনি জানান মো. বসির আহম্মেদকে সহকারী শিক্ষক সমাজ বিজ্ঞান পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। বসির আহমেদের শিক্ষাগত যোগ্যতা ব্যবসা শিক্ষা শাখায় ও এনটিআরসিএ নিবন্ধন ব্যবসা শিক্ষা শাখায় হওয়া সত্ত্বেও কীভাবে তাকে সহকারী শিক্ষক সমাজ বিজ্ঞান পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে প্রধান শিক্ষকের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি প্রতিবেদককে জানান এ বিষয়ে তিনি কোনো কথা বলবেন না।

তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক (বর্তমানে অবসরপ্রাপ্ত) রবীন্দ্রনাথ বিশ্বাসের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বিষয়টি যে কিভাবে হলো বুঝতে পারছি না।’

জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, মো. আলমগীর কবীর জানান, মাগুরা সদর উপজেলার সত্যপুর বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে মো. বসির আহম্মেদকে সহকারী শিক্ষক (সমাজ বিজ্ঞান) পদে জালিয়াতির মাধ্যমে প্রয়োজনীয় শিক্ষাগত যোগ্যতা না থাকা সত্ত্বেও নিয়োগ দেওয়ার অভিযোগের বিষয়টি অবগত হয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেব।

About admin

Check Also

সুখবর দিলেন মিথিলা

দুই বাংলার অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলা। সম্প্রতি এই অভিনেত্রী জানালেন— নতুন একটি ওয়েব সিরিজে যুক্ত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *