মা-বাবার সামনে প্রাণ গেল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের, কথা বলছেন না সেই বাবা-মা

সাম্প্রতিক সময়ে সড়ক দুর্ঘটনাসহ রেল দুর্ঘটনায় প্রানহানীর পরিমাণ অনেকাংশে বেড়ে গেছে। যার কারণে প্রায় প্রতিদিন অনেক মানুষ চলে যাচ্ছে না ফেরার দেশে। এবার ট্রেনে একটি ম”র্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটলো ঘটনা নাটোর লালপুরে। হাসানুজ্জামান ইমতিয়াজ নামের এক ২২ বছর বয়সি যুবক ট্রেনের সময় হঠাৎ করে ট্রেনের নিচে পড়ে যায়। যার কারণে তার মৃ”ত্যু ঘটে। আজ শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে আবদুলপুর রেলজংশনে ট্রেনে কাটা পড়ে তার প্রয়ান ঘটে।
হাসানুজ্জামান ইমতিয়াজ রাজশাহীর বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন। তার বাড়ি পাবনার ঈশ্বরদী শহরে। তার বাবা ইসহাক আলী পাবনা জজ কোর্টের আইনজীবী।

হাসানুজ্জামানের বন্ধু ও প্রত্যক্ষদর্শী আরিফুল ইসলাম জানান, তারা একসঙ্গে ঈশ্বরদী থেকে রাজশাহী যাচ্ছিলেন কমিউটার ট্রেনে। আবদুলপুর রেলওয়ে জংশনের প্ল্যাটফর্মে ট্রেন থামলে পুরি খেতে ট্রেন থেকে নামেন ইমতিয়াজ। পুরি খাওয়ার সময় ট্রেনটি ছেড়ে দিলে দৌড়ে ট্রেনের হাতল ধরে ওঠার চেষ্টা করেন। তবে হাত পিছলে ট্রেনের নিচে পড়ে যান আরিফুল। ট্রেনটি প্ল্যাটফর্ম ছেড়ে যাওয়ার পর লোকজন তার বিকৃত নিথর দেহ উদ্ধার করে।

আরিফুল জানান, দুর্ঘটনার সময় ইমতিয়াজের বাবা-মা ট্রেনের ভেতরে বসে ছিলেন। ঘটনার পর তারা হত”বাক। এরপর থেকে তারা কারো সাথে কথা বলছেন না।

জিয়াউল আলম যিনি আব্দুলপুর রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশন মাস্টার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন, তিনি এই দুর্ঘটনার বিষয়ে বলেন, আমি এ ঘটনাটি রেলওয়ে থানায় অবহিত করেছি। রেলওয়ে পুলিশ আসার পর পরবর্তীতে কি ব্যবস্থা নেয়া হবে সেটা তারাই দেখবেন। তবে যে ঘটনাটা ঘটেছে সেটা দারুণ দুঃখজনক একটি ঘটনা।

About admin

Check Also

ওবায়দুল কাদেরের উদ্বোধনী বক্তব্যের সময় হঠাৎ গোলাগুলি, হাসপাতালেএকজন

শুধু বিরোধী দলই নয়, বর্তমান ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে ঘিরেও ঘটছে নানা অপ্রত্যাশিত কাণ্ড। আর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *