বাঙালি মেয়ে হয়ে এমন ভিডিও করিস,  তোদের আজ বারোটা বাজাবো বলেই শুরু করে দেয় পিটুনি

সারাবিশ্বে অনেকেই  অনলাইনে বিনোদন জগতের দিকে বেশি আকৃষ্ট হচ্ছে।  তাইতো অনেকেই তৈরি করে যাচ্ছে ভিন্ন ভিন্ন ধাঁচের কনটেন্ট।  যে কনটেন্ট গুলো একজন দর্শক তার হাতে থাকা স্মার্ট ফোন দ্বারা উপভোগ করে। সম্প্রতি এমনই এক কনটেন্ট নির্মাতার সাথে ঘটে গিয়েছে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা।  তবে সে কন্টাক্ট নির্মাতা কোন পুরুষ নয় তারা ছিলেন দুইজন অল্প বয়সী তরুণী।  সংবাদ সূত্রে জানা যায় তারা সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম গুলোতে তাদের তৈরি করা মডেলিং ভিডিওগুলো আপলোড করতেন।  তবে তাদের কনটেন্টগুলো ছিল ব্যতিক্রমী।  যার জন্য কিছু যুবক ক্ষুব্ধ হয়ে তাদের ওপর হা/মলা চালায়।

জানা গেছে, ইউটিউবে অ// শ্লীল ভিডিও আপলোড করায় পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগনায় দুই তরুণীকে নির্ম//  মভাবে মারধর করা হয়েছে। মারধরের আগে হামলাকারীরা তাদের বলেছিল, বাঙালি মেয়ে হয়ে এটা কীভাবে করতে পারো! আমি তোমাকে বারোটা বাজাবো।

মেয়েরা পুলিশের কাছে যায় কিন্তু ব্যর্থ হয়। ১২ সেপ্টেম্বর তাদের ওপর হামলা হয়। হামলার শিকার শ্রী ভদ্র নামে এক যুবতী হাতে ও বুকে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। সন্নাতি মিত্রের মাথায়ও আঘাত করা হয়।
সন্নাতি মিত্র মাথায় গুরুত্বর আঘাত পেয়ে জ্ঞান হারান। বুকে ও পায়ে জখম হয়েছে

Sannati ভারতের এক  মিডিয়াকে বলেন যে তিনি মিস ইন্ডিয়া ২০১৭-এ অংশগ্রহণ করেছিলেন। তারপর থেকে আমরা মডেলিং, অভিনয়ের সাথে জড়িত। আমাদের একটি ইউটিউব চ্যানেলও আছে। আমি কয়েক বছর ধরে সেখানে ভিডিও আপলোড করছি। তিনি একটি মিউজিক অ্যালবাম প্রকাশ করার সিদ্ধান্ত নেন। গানটির নাম রসগোল্লা। সেই গানে আমার কনসেপ্ট ব্যবহার করে ভিডিওটি আপলোড করেছি। এটি একটি দুর্দান্ত সাফল্যও ছিল।

এটা উদযাপন করতে Deperia যাই. তখন সন্ধ্যা। এমন সময় পেছন থেকে হেলমেট ও মুখোশ পরা দুজন লোক এসে আমার বন্ধুকে পিছন থেকে বেধড়ক মারধর করে। আওয়াজ শুনে ঘুরে দাঁড়াতেই আমার মাথায় প্রচন্ড জোরে আঘাত করা হয়। দুজনকেই অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করা হয়। রসগোল্লার মতো নোংরা গান ছেড়েছিস ? তোদেরকে হ// ত্যা করা উচিত।

এই হামলা প্রসঙ্গে পরিচালক শতরূপা সান্যাল বলেন, বাংলায় এমন রাজনৈতিক পুলিশের কথা আগে শুনেছি বলে মনে পড়ে না। উত্তর ভারতে শুনেছি। বাঙালি তার চেয়ে অনেক বেশি প্রগতিশীল। কিন্তু সবচেয়ে ভয়ের বিষয় হল পুলিশের কাছে যাওয়ার পরও তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। এই দুই মেয়ে কীভাবে নাচবে, গাইবে, সেটা তাদের বিষয় এ বিষয়ে  পুলিশ কি করবে? গানটি ইউটিউবে আপলোড করা হয়েছে। যে এটা দেখতে চায়, সে দেখবে আর যাদের দেখতে মন চায়না তরা দেখবে না। টিকটকও এমন  ভিডিও আপলোড করে অনেকে। কই সেখানেতো কোনো সমস্যা হয় না।

দুই তরুণীকে গুরুতর আহত করার মতো ঘটনায় এখনও পর্যন্ত পুলিশ কোন ব্যবস্থা নেয়নি এটি আসলেই অনাকাঙ্ক্ষিত এবং অবাক করা বিষয়।  ওই তরুণী আহত হওয়ার পর হসপিটালে থাকা একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।  লক্ষ করা যাচ্ছে মেয়ে দুটি মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়েছে এবং তাদের মাথায় ব্যান্ডেজ রয়েছে।   এতে স্পষ্ট এটাই যারা তাদের ওপর হামলা চালিয়েছে তারা ওই দুই তরুণীকে নিথর করার উদ্দেশ্যে মাথায় আঘাত করেছে ।

About admin

Check Also

ওবায়দুল কাদেরের উদ্বোধনী বক্তব্যের সময় হঠাৎ গোলাগুলি, হাসপাতালেএকজন

শুধু বিরোধী দলই নয়, বর্তমান ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে ঘিরেও ঘটছে নানা অপ্রত্যাশিত কাণ্ড। আর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *