Breaking News

মদীনায় স্বর্ণ ও তামার নতুন খনির সন্ধান

পবিত্র শহর মদিনার আশেপাশে সোনা ও তামা সমৃদ্ধ নতুন খনির সন্ধান পাওয়া গিয়েছে বলে ঘোষণা দিয়েছে সউদী ভূতাত্ত্বিক জরিপ (এসজিএস)। তারা বলেছে যে, মদীনা অঞ্চলে উম্ম আল-বারাক হেজাজের ঢাল আবা আল-রাহার সীমানার মধ্যে সোনার আকরিক আবিষ্কার করা হয়েছে।

মদিনার ওয়াদি আল-ফারা অঞ্চলের আল-মাদিক এলাকায় চারটি স্থানে তামার আকরিকও আবিষ্কৃত হয়েছিল। এটি সেখানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা খনিজ চ্যালকোসাইট (Cu2S) থেকে বিশেষ তামা উৎপাদনের সম্ভাবনার প্রতিনিধিত্ব করে। নতুন এসব খনি আবিষ্কারের ফলে সউদী আরবে বিনিয়োগের গতি ত্বরান্বিত হবে, যা ক্রাউন প্রিন্সের ভিশন ২০৩০ এবং জাতীয় অর্থনীতিকে সমর্থন করবে।

মদীনা অঞ্চলে অবস্থিত উম্ম আল-দামার মাইনিং সাইটের লাইসেন্স পেতে ১৩টি সউদী এবং বিদেশী কোম্পানি প্রতিযোগিতা করছে। গত মাসে, শিল্প ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় ঘোষণা করেছে যে, তারা উম্ম আল-দামার খনির লাইসেন্সের জন্য ১৩ জন দরদাতাকে প্রাক-যোগ্যতা দিয়েছে। উম্ম আল-দামার সাইটটি ৪০ বর্গ কিলোমিটারেরও বেশি এলাকা জুড়ে রয়েছে এবং এতে তামা, দস্তা, সোনা এবং রৌপ্য জমা রয়েছে।

২০২২ সালের অক্টোবরের মধ্যে প্রাক-যোগ্য দরদাতাদের তাদের প্রস্তাব জমা দিতে হবে। মন্ত্রণালয়ের খনির পোর্টালে উপলব্ধ প্রকল্পের ব্রোশিওর অনুসারে, সাইটটির প্রত্যাশিত বিনিয়োগের আকার ২০০ কোটি সউদী রিয়াল এবং এটি প্রায় ৪ হাজার নতুন চাকরি তৈরি করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সউদী আরবের বার্ষিক তামা এবং দস্তা কেন্দ্রীভূত উৎপাদনের পরিমাণ ৬৮ হাজার। পাশাপাশি ২ কোটি ৪৬ লাখ টন ফসফেট আকরিক উত্তোলন করা হয় যা দিয়ে ৫২ লাখ ৬০ হাজার টন ফসফেট সার উৎপন্ন হয়। ফসফেট সার উৎপাদনে সউদী আরব বিশ্বে শীর্ষ পাঁচের মধ্যে রয়েছে। সূত্র: সউদী গ্যাজেট।

About admin

Check Also

নেছারাবাদে অভিভাবক দম্পত্তিকে ঝাড়ু পেটার হুমকির অভিযোগ

নেছারাবাদে স্বরূপকাঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এক ছাত্রী অভিভাবক দম্পত্তিকে ঝাড়ু পেটা করে বিদ্যালয় থেকে বের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *