Breaking News

পুলিশে ধাওয়ায় পানিতে ঝাঁপ, আট ঘণ্টা ধরে নিখোঁজ অভিযুক্ত

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গার ভাংবাড়িয়ায় জুয়ার আসরে পুলিশের হানা। দৌড়ে পালাতে গিয়ে মাথাভাঙ্গা নদীতে ঝাঁপ দেন টোকন আলী (৩৭) নামের এক ব্যক্তি। কিন্তু ঝাঁপিয়ে পড়ার পর ৮ ঘণ্টা অতিবাহিত হলেও তার খোঁজ মেলেনি।

বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) দিনভর এলাকাবাসী ও সিভিল ডিফেন্সের সদস্যরা তাকে খুঁজে না পেলে খুলনা বিভাগীয় সিভিল ডিফেন্সের ডুবুরিকে তলব করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় খুলনা অফিস থেকে ৫ সদস্যেরে একটি ডুবুরি দল ঘটনাস্থলে নিখোঁজ টোকনের অনুসন্ধান চালাচ্ছে।

নিখোঁজ টোকন আলমডাঙ্গা উপজেলার ভাংবাড়িয়া গ্রামের নতুন পাড়ার মৃত ওদুছদ্দীনের ছেলে।

গতকাল বুধবার বেলা এগারোটায় এই ঘটনা ঘটে এবং বিষয়টি বেলা তিনটায় জানাজানি হয়।

আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল আলিম জানান, জুয়া খেলার সংবাদ পেয়ে বুধবার বেলা ১১টার দিকে হাটবোয়ালিয়া ক্যাম্প ইনচার্জ এ এস আই জাহিদুল ও তার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল ভাংবাড়িয়া কারিগর পাড়ায় অভিযান চালালে টোকন ও নজিম দুইজন অথৈয় মাথাভাঙ্গা নদীর পানিতে ঝাঁপ দেন। কবির এবং আকছেদকে আটক করে পুলিশ।

এরপর নাজিম নদী থেকে সাঁতরে ওপারে গিয়ে উঠতে পারলেও টোকনের বিষয়ে কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি।

আলমডাঙ্গা ও চুয়াডাঙ্গা সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী রফিকুল ইসলাম ৭ সদস্যের একটি দল নিয়ে বেলা ৩টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টা পর্যন্ত ঘটনাস্থলে বিভিন্নভাবে তল্লাশি চালিয়ে ব্যর্থ হয়।

এরপর গতকাল সন্ধ্যায় খবর দেওয়া হয় খুলনা বিভাগীয় সিভিল ডিফেন্সের ডুবুরি দলকে।

আরও পড়ুন: চিপসের লোভ দেখিয়ে শিশু ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ কিশোরের বিরুদ্ধে

চুয়াডাঙ্গা সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী রফিকুল ইসলাম জানান, যেহেতু মাথাভাঙ্গা নদীতে প্রচুর স্রোত ও অথৈয় ঘোলা পানি এ পরিবেশে একমাত্র অভিজ্ঞ ডুবুরি ছাড়া নিখোঁজ ব্যক্তিকে খুঁজে পাওয়া সম্ভব নয়। খুলনা ডুবুরি দলকে খবর দেওয়া হয়েছে, তারা বুধবার দিবাগত রাত ৪টার দিকে ৫ সদস্যের একটি ডুবুরি দল আলমডাঙ্গার ভাংবাড়িয়া ঘটনাস্থলে পৌঁছে অনুসন্ধান চালাচ্ছেন।

About admin

Check Also

প্রধানমন্ত্রীর মহানুভবতায় চাকরি পেলেন পা হারানো ছাত্রলীগ নেতা মাসুদ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মহানুভবতায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরি পেয়েছেন ছাত্রশিবিরের নৃশংস হামলায় পা হারানো ছাত্রলীগ নেতা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *