Breaking News

খুব কষ্টে দিন কাঁটছে খালেদার খোঁজ নেয় না কেউ

বর্তমানে খুব খারাপ পরিস্থিতিতে দিন কাটাচ্ছেন অভিনেত্রী কল্পনা। সিনেমায় এখন আর কেউ তাকে ডাকে না কারণ তার হয়তো বয়স হয়েছে। এমতাবস্থায় নিজের চলাফেরাও হয়ে গেছে দুষ্কর। ৩৮ বছরের অভিনয় জীবনে তেমন কিছু সঞ্চয় করে রাখতে পারেনি এই অভিনেত্রী। বাংলাদেশের এক জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যম থেকে এই বিষয় গুলো নিশ্চিত হয়েছে ওয়েল নিউজ ২৪।
ওই সংবাদ মাধ্যম জানায়, ঢাকাই চলচ্চিত্রের এক সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী খালেদা আক্তার কল্পনা। ৩৮ বছর ধরে ঢাকাই সিনেমায় অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। এ সময় তিনি পাঁচ শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। তবে গত দশ বছর ধরে চলচ্চিত্রের বাইরে রয়েছেন তিনি। বেশ কয়েকবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। তবে বর্তমানে তাকে অভিনয়ের জন্য খুব একটা ডাকা হয় না। আর এ সময় তিনি ঘরে বসে নাটক লেখেন।

বিশ্বজুড়ে চলমান পরিস্থিতির কারণে যখন তিনি বাড়ি থেকে বের হতে পারেন না তখন কিংবদন্তি অভিনেত্রী তার দিনগুলি কীভাবে কাটান? কেমন আছেন খালেদা আক্তার কল্পনা? খোঁজ নিয়ে জানা গেল, তিনি এখন ছেলের বাড়িতে থাকেন। ছেলের স্ত্রী সন্তান হতে পারে। আগামী মাসে তিনি হয়তো তার নাতি বা নাতির মুখ দেখতে পাবেন। একসময় পর্দা কাঁপানো এই অভিনেত্রীকে কেউ খুঁজছেন না। না, এ নিয়ে তার কোনো অভিযোগ নেই। এই সময়ে আপনার চারপাশের মানুষদের কথাও ভাবুন।

খালেদা আক্তার কল্পনা গণমাধ্যমকে বলেন, মানুষকে সাহায্য করার ক্ষমতা আমার আর নেই। বেশ কিছুদিন ধরে চোখের সমস্যায় ভুগছি। চিকিৎসার জন্য ভারতে গিয়েছিলাম। এখন কাজ নেই, টাকা নেই। তারপরও আমার পক্ষ থেকে সাধ্যমত কিছু মানুষকে সাহায্য করার চেষ্টা করেছি। আমি আমার আত্মীয় এবং পরিচিতদের মধ্যে এটি করেছি। সেভাবে মানুষের পাশে দাঁড়াতে না পারায় দুঃখ লাগে।
এই প্রবীণ অভিনেতা তাদের জন্য তার ভালবাসা প্রকাশ করেছেন যারা মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন এবং তাদের সাহায্য করছেন।

খালেদা আক্তার কল্পনা বলেন, অনেকেই বেকার, টাকা নেই, কাজ নেই, খাবার নিয়ে দুশ্চিন্তা। সরকার ত্রাণ দিচ্ছে। এছাড়াও অনেক সচ্ছল মানুষ এগিয়ে আসছেন, অসহায়দের পাশে দাঁড়িয়েছেন। অনেক প্রতিষ্ঠান মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসছে। এটা দেখে খুব ভালো লাগছে।
তিনি আরও বলেন, যারা সাহায্য করছেন তারা কতদিন এভাবে সাহায্য করতে পারবেন। এছাড়াও যারা সহায়তা নিচ্ছেন তারা কতদিন এই সব খাবার দিয়ে চলবে। আবার দেশে এমন অনেক মানুষ আছে যারা কিছু চাইতেও পারছেন না। এই সব মানুষের কি হবে? এছাড়া অনেকেই আছেন যারা যা চান তা পান না বা কেউ বিশ্বাস করেন না। অনেকে তাদের সমস্যা বলেন কিন্তু যারা বলতে পারেন না তাদের সমস্যা বেশি।
বর্তমানে ঢাকাই চলচ্চিত্রের এক সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী খালেদা আক্তার কল্পনা লিখালিখি করে তার জীবন চালনা করছেন বলে জানা যায়। যেহেতু নিজের চলাফেরায় তার অনেক অসুভিধা হচ্ছে তাই অন্যকে সাহায্য করা সামর্থ্য নেই তার। সিনেমার এক সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী হওয়ায় অনেকে তার কাছে সাহায্যের জন্য গেলেও তাদের ফিরিয়ে দিতে হয় বলে কষ্ট পান তিনি। তাই আবেগে আপ্লুত হয়ে সংবাদ মাধ্যমে তিনি এসব তথ্য প্রকাশ করেন।

About admin

Check Also

পরী অভিমান করেছে, বিচ্ছেদ হবেনা : রাজের বাবা

রাজের সঙ্গে এক ছাদের নিচে থাকছেন না বলে জানিয়েছেন পরীমণি। শিগগিরই বিচ্ছেদের চিঠি পাঠাবেন বলেও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *