Breaking News

রিমান্ডের আসামি ঢামেকের ভিআইপি কেবিনে

রিমান্ডের আসামি আছেন ভিআইপি কেবিনে। ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের দুই সাংবাদিকের ওপর হামলাকারী ডাক্তার উসমানী অসুস্থতার অজুহাতে এখন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ভিআইপি কেবিনে। রিমান্ডের আসামি হয়ে কীভাবে ভিআইপি কেবিনে? তার উত্তর দিতে পারেনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। বুকে ব্যথার কারণে তাকে হাসপাতালে পাঠানো হয় বলে দাবি পুলিশের।

কামরাঙ্গীরচরে এসপিএ রিভারসাইড মেডিকেল সেন্টারে ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের সাংবাদিক হাসান মিসবাহ ও ভিডিও জার্নালিস্ট সাজু মিয়াকে হত্যাচেষ্টা মামলায় হাসপাতালের মালিক এম এইচ উসমানীসহ চারজনকে তিন দিনের রিমান্ডে পাঠানো হয়। কিন্তু শুক্রবার রিমান্ডের দ্বিতীয় দিনে খোঁজ নিয়ে জানা গেলো, উসমানী রিমান্ডে নেই, আছেন হাসপাতালে। তাও আবার ভিআইপি কেবিনে!।
উসমানীর খবর জানতে ঢাকা মেডিকেলে যায় ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন। জরুরি বিভাগের রোগী ভর্তি শাখায় খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ভর্তি হয়েছেন ঢাকা মেডিকেলের নতুন ভবনের ৬০১ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ডে। সেখানে গিয়ে তাকে না পেয়ে কর্তব্যরত নার্সের সহায়তা নিয়েও হদিস মেলেনি উসমানীর।

অবশেষে জানা গেলো উসমানী আছেন কেবিনে। রিমান্ডের আসামি হয়েও ১০ তলার ভিআইপি ১০৬ নম্বর কেবিনে এখন তিনি।
হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার মতো অসুস্থতা আছে উসমানীর আছে কীনা এমন প্রশ্নে চিকিৎসক গোবিন্দ চন্দ্র বনিক জানালেন, তার ব্লাড পেশার অত্যধিক বেড়ে যাওয়ায় ভর্তির পরামর্শ দেয়া হয়েছিলো। কিন্তু, ভিআইপি কেবিনের বিষয়ে কিছুই জানেন না চিকৎিসক।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক নিজেই জানেন না সাধারণ ওর্য়াডের রোগী উসমানীর কীভাবে ভিআইপি কেবিনে স্থান হলো? তবে দ্রুত সেখান থেকে তাকে সরিয়ে ফেলা হবে বলে জানালেন পরিচালক।
ঢাকা মেডিকেলের পরিচালক আরো জানান, উসমানীর শারীরিক পরীক্ষার রিপোর্টে দেখে দ্রুত হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়ার ব্যবস্থা নেয়া হবে।

About admin

Check Also

উঠানে বাবার লাশ, সন্তানরা অবসরের টাকা নিয়ে দ্বন্দ্বে

চট্টগ্রাম নগরীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান মনির আহমদ (৬৫)। মরদেহ হাসপাতাল থেকে নিয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *